Advertisement
  • প্রচ্ছদ রচনা
  • মার্চ ১০, ২০২২

পাঁচ রাজ্যের বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রীদের ভোট যুদ্ধের হাল-হকিকত।

কেউ হাসি ছড়ালেন চওড়া, কারও মুখ গোমরা।

আরম্ভ ওয়েব ডেস্ক
পাঁচ রাজ্যের বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রীদের ভোট যুদ্ধের হাল-হকিকত।

পাঁচ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফলের পর দেখা গেল কারও মুখে হাসি আরও চওড়া, কারও মুখ গোমরা। পঞ্জাবের বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চন্নি এবারের নির্বাচনে দুটি আসন থেকে লড়াইয়ের ময়দানে নেমেছিলেন । চমকৌর সাহিব এবং ভাদৌর । উভয় কেন্দ্র থেকেই ধরাশায়ী হয়েছেন চন্নি। ভাদৌরে, আম আদমি পার্টির লভ সিং উগোকে ৫৭ হাজারেরও বেশি ভোট পেয়েছেন, আর সেখানে বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী পেয়েছেন ২৩ হাজারের কিছু বেশি ভোট। বিশাল ব্যবধানে ধরাশায়ী হয়েছেন চন্নি। আর চমকৌর সাহিবে কিছুটা লড়াই করলেও শেষ হাসি হাসতে পারেননি চন্নি। প্রায় ৫০ হাজার ভোট পেয়েছেন বটে, তবে তাঁকে ছাপিয়ে গিয়েছেন কেজরীবালের প্রার্থী। এখানে আবার আম আদমি পার্টির টিকিটে যিনি প্রার্থী হয়েছেন, তিনিও চরণজিৎ সিং। তিনি পেয়েছেন ৫৪ হাজারের কিছু বেশি ভোট।

উত্তর প্রদেশের বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের মুখে চওড়া হাসি। ফের একবার উত্তর প্রদেশের ক্ষমতায় বসবেন তিনি। কার্যত একতরফা জয়। ১ লাখ ২ হাজার ভোটে জয়ী হয়েছেন তিনি। উত্তর প্রদেশের ইতিহাসে যোগী আদিত্যনাথ হতে চলেছেন পঞ্চম মুখ্যমন্ত্রী, যিনি পর পর দুই বার নির্বাচনে জিতলেন। শুধু এই নয়, একের পর এক রেকর্ড গড়েছেন যোগী আদিত্যনাথ। ১৯৮৫ সালের পর থেকে উত্তর প্রদেশের কোনও মুখ্যমন্ত্রীই পর পর দুই বার নিজের পদ ধরে রাখতে পারেননি। দীর্ঘ ৩৭ বছর পর সেই ফাঁড়া কাটালেন যোগী আদিত্যনাথ।
উল্লেখ্য, উত্তর প্রদেশে এখনও পর্যন্ত মোট চার জন মুখ্যমন্ত্রী পেয়েছে বিজেপি। যোগী আদিত্যনাথের আগে কল্যাণ সিং, রাম প্রকাশ গুপ্ত এবং প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন। তবে তাঁদের কেউই এখনও পর্যন্ত পর পর দুইবার মুখ্যমন্ত্রীর আসনে থাকেননি। যোগী আদিত্যনাথই এখনও পর্যন্ত একমাত্র বিজেপির থেকে মুখ্যমন্ত্রী, যিনি পরপর দুইবার মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পথে। যোগীর ঝুলিতে এবারের নির্বাচনে আরও রেকর্ড রয়েছে। বিগত দেড় দশকে কোনও বিধায়ক মুখ্যমন্ত্রী পায়নি উত্তর প্রদেশ। এবার যোগী আদিত্যনাথ বিধানসভা নির্বাচনে জয়ী হওয়ায় সেই রেকর্ডও ভাঙার পথে উত্তরপ্রদেশ।

উত্তরাখণ্ডের বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী পুষ্কর সিং ধামি অবশ্য ধরাশায়ী হয়েছেন। কংগ্রেসের ভুবন কাপরির কাছে ৬ হাজার ৯৩২ ভোটে হেরে পরাজিত হয়েছেন পুষ্কর সিং ধামি। উত্তর প্রদেশের ভোটে গোরক্ষপুরে যে চওড়া হাসি হেসেছেন যোগী, পাশের রাজ্য উত্তরাখণ্ডে শেষ হাসি হাসতে পারেননি বিজেপির পুষ্কর সিং ধামী।

গোয়ায় সানকুইলিম বিধানসভা কেন্দ্র থেকে ৬৫০ ভোটে জয়ী হয়েছে তিনি। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন কংগ্রেস প্রার্থী ধর্মেশ সাংলানি। গোয়ার ১৩ তম মুখ্যমন্ত্রী প্রমোদ সাওয়ান্ত। মনোহর পারিক্কর যখন গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন, সেই সময় গোয়া বিধানসভার অধ্যক্ষ ছিলেন সাওয়ান্ত। মনোহর পারিক্করের প্রয়াণের পর তিনি মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছিলেন ২০১৯ সালের ১৯ মার্চ। এবার বিধানসভা নির্বাচনে ফের একবার নিজের কেন্দ্র সানকুইলিম থেকে জয়ী বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী।

মণিপুরের বিদায়ী মুখ্যমন্ত্রী এন বিরেন সিংও জয়ী হয়েছেন নিজের ঘর থেকে। পূর্ব ইম্ফলের হেইনগ্যাং বিধানসভা কেন্দ্র থেকে ১৮ হাজার ২৭১ ভোটে জয়ী হয়েছেন তিনি। তিনি পেয়েছেন ২৪ হাজার ৮১৪ ভোট। ধারে কাছে ঘেঁষতে পারেননি অন্যান্য প্রার্থীরা। নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী কংগ্রেসের প্যানগেইজাম শরৎচন্দ্র সিং পেয়েছেন ৬ হাজার ৫৪৩ ভোট।


  • Tags:

Read by:

❤ Support Us
Advertisement
Hedayetullah Golam Rasul Raktim Islam Block Advt
Advertisement
homepage block Mainul Hassan and Laxman Seth
Advertisement
শিবভোলার দেশ শিবখোলা স | ফ | র | না | মা

শিবভোলার দেশ শিবখোলা

শিবখোলা পৌঁছলে শিলিগুড়ির অত কাছের কোন জায়গা বলে মনে হয় না।যেন অন্তবিহীন দূরত্ব পেরিয়ে একান্ত রেহাই পাবার পরিসর মিলে গেছে।

সৌরেনি আর তার সৌন্দর্যের সই টিংলিং চূড়া স | ফ | র | না | মা

সৌরেনি আর তার সৌন্দর্যের সই টিংলিং চূড়া

সৌরেনির উঁচু শিখর থেকে এক দিকে কার্শিয়াং আর উত্তরবঙ্গের সমতল দেখা যায়। অন্য প্রান্তে মাথা তুলে থাকে নেপালের শৈলমালা, বিশেষ করে অন্তুদারার পরিচিত চূড়া দেখা যায়।

মিরিক,পাইনের লিরিকাল সুমেন্দু সফরনামা
error: Content is protected !!