Advertisement
  • স | হ | জ | পা | ঠ
  • নভেম্বর ১৭, ২০২১

১৭ নভেম্বর আকাশে  দেখা মিলবে সিংহরাশির আগুনবিন্দুর!

১৭ নভেম্বর আকাশে  দেখা মিলবে সিংহরাশির আগুনবিন্দুর!

প্রতি বছরই নভেম্বর মাসে আকাশ থেকে আলোর বিন্দু ঝরে পড়ে। জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা বা নক্ষত্র পর্যবেক্ষকেরা প্রতিবছরই এই সময়টির জন্য অপেক্ষা করেন। এ বছর যেমন ৬ নভেম্বর থেকে এই আলোকপাত শুরু আর চলবে নভেম্বরের ৩০  পর্যন্ত। আজ ১৭ নভেম্বর, এই আলোকপাত তুঙ্গে অবস্থান করবে বলেই জানিয়েছেন জ্যোতির্বিজ্ঞানীরা।

১৮৮৩ সালে একটি ধূমকেতুর লেজের অংশবিশেষকেই আকাশে দেখা গিয়েছিল। ‘৫৫পি/টেম্পেল-টাটল’ নামক ধূমকেতু পৃথিবীর আবহমণ্ডলে ঢুকে পড়ে। আর তখনই আবহমণ্ডলের সঙ্গে সংঘর্ষে আগুন জ্বলে ওঠে। নৈশ-আকাশে আলোর রেখা দেখা যায়। আকাশের সিংহরাশির অঞ্চল থেকে এই আলোকবিন্দু ঝরতে দেখা যায় বলে এই আলোকবর্ষণের নাম দেওয়া হয়েছে ‘লিওনিডস মিটিওর শাওয়ার’। ধূমকেতুর লেজের ওই বাতিল জঞ্জাল যাদের ‘ডেব্রি’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়, মহাশূন্যে তাদের ছুটে চলার গতি হল দু’লক্ষ পঞ্চান্ন হাজার ছশো কিলোমিটার পার আওয়ার।

যেখানে আলোর দূষণ নেই, যে-অঞ্চলে আকাশ ঘন কালো আঁধারে ঢাকা সেখান থেকে এই আলোকবর্ষণ ভালো ভাবে দেখা যাবে। তবে আকাশে চাঁদের আলো থাকলে তা প্রাথমিক ভাবে একটু অসুবিধার সৃষ্টি করতে পারে।
প্রত্যেকবারই এই আলোকপাত ধূমকেতুপাতে পরিবর্তিত হয় না। মোটামুটি ৩৩ বছর পর পর দিগন্তে ধূমকেতুর মতো আছড়ে পড়ে সিংহরাশির আগুনবিন্দু।


  • Tags:

Read by:

❤ Support Us
Advertisement
Hedayetullah Golam Rasul Raktim Islam Block Advt
Advertisement
Hedayetullah Golam Rasul Raktim Islam Block Advt
Advertisement
শিবভোলার দেশ শিবখোলা স | ফ | র | না | মা

শিবভোলার দেশ শিবখোলা

শিবখোলা পৌঁছলে শিলিগুড়ির অত কাছের কোন জায়গা বলে মনে হয় না।যেন অন্তবিহীন দূরত্ব পেরিয়ে একান্ত রেহাই পাবার পরিসর মিলে গেছে।

সৌরেনি আর তার সৌন্দর্যের সই টিংলিং চূড়া স | ফ | র | না | মা

সৌরেনি আর তার সৌন্দর্যের সই টিংলিং চূড়া

সৌরেনির উঁচু শিখর থেকে এক দিকে কার্শিয়াং আর উত্তরবঙ্গের সমতল দেখা যায়। অন্য প্রান্তে মাথা তুলে থাকে নেপালের শৈলমালা, বিশেষ করে অন্তুদারার পরিচিত চূড়া দেখা যায়।

মিরিক,পাইনের লিরিকাল সুমেন্দু সফরনামা
error: Content is protected !!