Advertisement
  • দে । শ
  • এপ্রিল ২৯, ২০২৪

হাত শিবিরে ভাঙন, কলনায় শাসকদলে আস্থা দুশো কর্মী ও সমর্থকের

আরম্ভ ওয়েব ডেস্ক
হাত শিবিরে ভাঙন, কলনায় শাসকদলে আস্থা দুশো কর্মী ও সমর্থকের

লোকসভা ভোটের মুখে ভাঙল কংগ্রেস। কালনার নান্দাই অঞ্চলে তৃণমূলের সভায় দুশোর কাছাকাছি কংগ্রেস কর্মী ও সমর্থক তৃণমূলে যোগদান করলেন।  যোগদানকারীদের হাতে তৃণমূলের পতাকা তুলে দেন এলাকার বিধায়ক তথা রাজ্যের মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ। ছিলেন ২০১৪-র লোকসভা ভোটে বর্ধমান পূর্ব লোকসভার বিজেপি প্রার্থী সন্তোষ রায়। তিনি ‘মমতা ব্যানার্জির আদর্শে অনুপ্রাণিত’ হয়ে সদ্য বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। সন্তোষ রায় তাঁর বক্তব্যে রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী ও নরেন্দ্র মোদিকে ‘মাতব্বর’ বলে কটাক্ষ করেন। বলেন, ‘এঁরা বিজেপির আদর্শকেই জলাঞ্জলি দিয়েছেন। নিজেদের স্বার্থে বিজেপিকে ব্যবহার করছে। রামের নাম নিয়ে হুমকি দিচ্ছেন। ভয়-সন্ত্রাসের পরিবেশ তৈরি করছেন।’ সাফ জানান, ‘যাঁদের জন্য দেশের বিভিন্ন জায়গায় বিজেপি প্রভাব বাড়িয়েছে, সেই বাজপেয়ী, আডবানির বিজেপি এখন আর নেই।’ যোগ করেন,  ‘বর্তমান বিজেপির সঙ্গে ২০১৪ -র আগের বিজেপির কোনও যোগ নেই।’ বিজেপিকে ‘জমিদার, দালালদের দল’ বলে নিন্দায় মুখর হন তিনি। আরও জানান, ‘একসময় পূর্ব বর্ধমান জেলায় বিজেপির যে মাটি তৈরি হয়েছিল, এখন তা আর নেই।’ এই জেলায় ‘বিজেপির পতন যাত্রা শুরু হয়েছে’ বলেও মন্তব্য করেন সন্তোষবাবু। তিনি এও জানান,  ‘বিজেপির মাতব্বরি ও দাদাগিরি বন্ধ করতেই আমি তৃণমূলে যোগদান করেছি।’ অন্যদিকে মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ জানান, ‘মমতা ব্যনর্জির আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে ঘুঘুডাঙা সংসদের ১৮৮ নং বুথের ২০০ কংগ্রেস কর্মী তৃণমূলে যোগদান করলেন। এর ফলে এলাকায় তৃণমূল আরও শক্তিশালী হল।’


  • Tags:
❤ Support Us
error: Content is protected !!