Advertisement
  • ন | গ | র | কা | হ | ন প্রচ্ছদ রচনা
  • নভেম্বর ২১, ২০২৩

মুকেশের মুখে মমতার স্তুতি, ৩ বছরে বাংলায় আরও ২০ হাজার কোটি বিনিয়োগের প্রতিশ্রুতি আম্বানির

আরম্ভ ওয়েব ডেস্ক
মুকেশের মুখে মমতার স্তুতি,  ৩ বছরে বাংলায় আরও ২০ হাজার কোটি বিনিয়োগের প্রতিশ্রুতি আম্বানির

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে পশ্চিমবঙ্গ এখন বিনিয়োগের গন্তব্য বলে সপ্তম বিশ্বববঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলনে মন্তব্য করলেন মুকেশ আম্বানি। তিনি মঙ্গলবার বিজিবিএস-এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাজ্যে আরও ২০ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগের প্রতিশ্রুতি দেন মুকেশ আম্বানি। মঙ্গলবার বিশ্ববঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলনের মঞ্চ থেকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে নেত্রী হিসেবে ভূয়সী প্রশংসা করেন মুকেশ। মুকেশ আম্বানি এদিন বলেন, “মমতাদির দূরদর্শী নেতৃত্বের জন্যই বাংলা এখন লগ্নির আদর্শ গন্তব্যে পরিণত হয়েছে। আমাদের কাছেও বাংলায় এখন বিনিয়োগের অন্যতম গন্তব্য।’’ এদিন রিলায়্যান্স গোষ্ঠী আগামী তিন বছরে বাংলায় আরও ২০ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে বলে প্রতিশ্রুতি দেন।

মুকেশের আম্বানির কথায়, ‘‘ইতিমধ্যেই রাজ্যে ৪৫ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে রিলায়্যান্স। আগামী তিন বছরে আরও ২০ হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগ করা হবে। শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও কৃষিক্ষেত্রকে ডিজিটালি আরও উন্নত করার জন্য বিনিয়োগ করা হবে এই রাজ্যে। একই সঙ্গে, টেলি যোগাযোগে জিয়োকে আরও প্রত্যন্ত অঞ্চলে পৌঁছে দেওয়া হবে। পাশাপাশি, জৈব শক্তি উৎপাদনে রিলায়্যান্স গুরুত্ব আরোপ করবে,  সেই ক্ষেত্রেও বাংলায় বিনিয়োগ করা হবে।”

পরিসংখ্যান দিয়ে মুকেশ দাবি করেন, টেলি সংযোগে কলকাতা জোনে ইতিমধ্যেই ৯৮ শতাংশ ব্যবহারকারীর কাছে পৌঁছে গিয়েছে জিয়ো। তা ১০০ শতাংশ করতে চায় রিলায়্যান্স। মুকেশের কথায়, ‘‘বাংলার জিডিপি-ই বলে দিচ্ছে, এই রাজ্য এখন বিনিয়োগের জন্য কতটা উর্বর।’’ মমতার নেতৃত্বের কথা বলতে গিয়ে প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ীর কথা উল্লেখ করে মুকেশ বলেন, ‘‘অটলবিহারী বাজপেয়ী যথার্থই আপনাকে অগ্নিকন্যা বলে বর্ণনা করেছিলেন।’’

এ ছাড়াও বাণিজ্য সম্মেলনের মঞ্চ থেকে আরও তিনটি বিষয় ঘোষণা করেন মুকেশ। তিনি বলেন,  কালীঘাট মন্দির সংস্কারের কাজ হাতে নিয়েছে রিলায়্যান্স। মুকেশ মঙ্গলবার মু্খ্যমন্ত্রীর উদ্দেশে বলেন, ‘‘সংস্কারের কাজ নীতা এবং আমি তত্ত্বাবধান করছি। এই সুযোগ আমাদের দেওয়ার জন্য কৃতজ্ঞ।’’ দ্বিতীয়ত, বাংলার হস্তশিল্পকে বিপণন করবে রিলায়্যান্স মার্ট। তৃতীয়ত, রাজ্যে হস্তশিল্পের আরও বিকাশের জন্য একটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র গড়ে তুলবে তাঁর রিলায়্যান্স।

শুধু রিলায়্যান্সই নয়, মঙ্গলবার আরও কিছু  শিল্পপতি রাজ্যে বিনিয়োগ ঘোষণা করেছেন। তার মধ্যে উল্লেখযোগ্য, নারায়ণা গ্রুপের কর্ণধার তথা চিকিৎসক দেবীপ্রসাদ শেট্টি। আগামী দু’বছরের মধ্যে কলকাতায় একটি অত্যাধুনিক হাসপাতাল গড়ে তুলবে তাঁর সংস্থা। যেখানে হৃদ্‌রোগ, ক্যানসারের চিকিৎসার পাশাপাশি অঙ্গ প্রতিস্থাপনও হবে। জেকে গ্রুপের কর্তা হর্ষপতি সিঙ্ঘানিয়া খড়্গপুরের বিদ্যাসাগর শিল্পতালুকে দুগ্ধ শিল্পে বিনিয়োগের কথা ঘোষণা করেছেন। তিনি বলেন, ‘‘ওই প্রকল্পে সরাসরি দু’হাজার জনের কাজ হবে।’’

বাংলায় আরও বিনিয়োগের কথা বলেছেন উইপ্রো কর্তা রিশাদ প্রেমজি-ও। তাঁর কথায়, ‘‘রাজারহাটের জমিতে উইপ্রো যে ক্যাম্পাস তৈরি করবে, তা হবে দেশের মধ্যে সবচেয়ে বড়। আমরা বাংলায় দীর্ঘমেয়াদী বিনিয়োগের রাস্তায় যেতে চাই।’’ এ ছাড়াও স়ঞ্জীব গোয়েন্‌কা, আইটিসি চেয়ারম্যান সঞ্জীব পুরী, বেঙ্গল অম্বুজা গ্রুপের কর্ণধার হর্ষ নেওটিয়া-সহ অন্য শিল্পপতিরা তাঁদের বক্তব্যে বাংলার শিল্প সম্ভাবনার কথা তুলে ধরেন। তবে সপ্তম বিজিবিএস-এ গৌতম আদানি বা সেই সংস্থার কোনও প্রতিনিধি উপস্থিত হননি।


  • Tags:

Read by:

❤ Support Us
Advertisement
Hedayetullah Golam Rasul Raktim Islam Block Advt
Advertisement
Hedayetullah Golam Rasul Raktim Islam Block Advt
Advertisement
শিবভোলার দেশ শিবখোলা স | ফ | র | না | মা

শিবভোলার দেশ শিবখোলা

শিবখোলা পৌঁছলে শিলিগুড়ির অত কাছের কোন জায়গা বলে মনে হয় না।যেন অন্তবিহীন দূরত্ব পেরিয়ে একান্ত রেহাই পাবার পরিসর মিলে গেছে।

সৌরেনি আর তার সৌন্দর্যের সই টিংলিং চূড়া স | ফ | র | না | মা

সৌরেনি আর তার সৌন্দর্যের সই টিংলিং চূড়া

সৌরেনির উঁচু শিখর থেকে এক দিকে কার্শিয়াং আর উত্তরবঙ্গের সমতল দেখা যায়। অন্য প্রান্তে মাথা তুলে থাকে নেপালের শৈলমালা, বিশেষ করে অন্তুদারার পরিচিত চূড়া দেখা যায়।

মিরিক,পাইনের লিরিকাল সুমেন্দু সফরনামা
error: Content is protected !!