Advertisement
  • ভা | ই | রা | ল
  • আগস্ট ১১, ২০২২

সীমানা দেশ ভাগ করে, মানুষকে না। ভারত-পাক পতাকা হাতে সৌভ্রাতৃত্বের বার্তায় দুই তনয়া

পতাকা হাতে বিভেদ মুছলেন ভারত এবং পাকিস্তানের দুই তনয়া

আরম্ভ ওয়েব ডেস্ক
সীমানা দেশ ভাগ করে, মানুষকে না। ভারত-পাক পতাকা হাতে সৌভ্রাতৃত্বের বার্তায় দুই তনয়া

চিত্র সৌজন্য লিঙ্কডিন

স্নেহা বিশ্বাস, হারভার্ড বিসনেজ স্কুলের এক ভারতীয় ছাত্রী। সম্প্রতি তার সোশ্যাল অ্যাকাউন্টে শেয়ার করেছেন একটি ছবি।নিজের লিঙ্কডিন প্রোফাইলে তিনি লিখেছেন তার পাকিস্তানি বান্ধবীর কথা, রাজনীতি আর ধর্মের গণ্ডি পেরিয়ে, যার সঙ্গে গড়ে উঠেছে কেবল ভালোবাসা ও বিশ্বাসের অটুট বন্ধন !

দেশভাগের পর থেকেই ভারত-পাকিস্তানের মধ্যেবর্তী কাঁটাতার ছড়িয়েছে ঘৃণা আর বিদ্বেষের সম্পর্ক। যুদ্ধক্ষেত্র, রাজনীতি কিংবা খেলার মাঠ ! এই সব কুরুচির উর্ধ্বে উঠে হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারতীয় ছাত্রী স্নেহা বিশ্বাস এবং তার পাকিস্তানি বান্ধবি শেয়ার করলেন তাদের বন্ধুত্ব ও ভালোবাসার গল্প। ছবি দিলেন পরস্পরের দেশের পতাকা হাতে নিয়ে। উদযাপন করলেন হারর্ভাডের “ফ্ল্যাগ-ডে”।

রাজনৈতিক টানাপোরেনকে উপেক্ষা করে প্রতিবেশী দুই দেশের তরুণ ছাত্রীর, দু-দেশের পতাকাকে বক্ষে জড়িয়ে নেওয়ার এই পদক্ষেপ, সত্যি প্রশংসনীয়। স্নেহা জানিয়েছেন, তিনি বুঝতে পেরেছেন যে আমাদের নিজের দেশের প্রতি গর্ব দৃঢ় হলেও, মানুষের প্রতি আমাদের ভালবাসা সর্বদা ভৌগলিক এবং সীমানা অতিক্রম করে যায়। মানুষ, মৌলিকভাবে, সর্বত্র একই রকম। সীমানা মানুষই তৈরি করে, কিন্তু এর সীমাবদ্ধতা মস্তিষ্ক উপলব্ধি করতে পারলেও হৃদয়ের আবেগ তা বুঝতে নারাজ। তাই রাখী আর দুই দেশের স্বাধীনতা দিবসের প্রাক্কালে সৌভ্রাতৃত্বের এই ছবি প্রকাশ করেই সেই কাঁটাতারের বেড়াকে মুছলেন দুই তনয়া।

প্রসঙ্গত এবছর, ভারত তার স্বাধীনতার ৭৫ তম বার্ষিকীর উদযাপন।সেই উপলক্ষ্যেই, ১৩ থেকে ১৫ আগস্ট ‘হার ঘর তিরঙ্গা’ নীতির ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। কিন্তু দেশের পতাকাকে নিয়ে তাঁর এই উদযাপনের ঘোষণাকে ঘিরে শুরু হয়েছে বিতর্ক। স্বাধীনতা অর্জনের ৭৫ বছর পরেও দেশের আর্থ সামাজিক কাঠামোয় যে খামতি রয়ে গেছে, বিদ্বেষের যে বীজ ক্রমাগত ছড়িয়ে দেওয়া হচ্ছে জনগণের মধ্যে, সেখানে ঐক্য আর জাতীয়তাবাদের হিরিক তুলে তাকে এড়িয়ে যেতে চাইছে রাষ্ট্রীয় প্রশাসকরা, সেসব সমস্যা তিরঙ্গার ছায়ায় ঢেকে ফেলতে চায় সরকার?


❤ Support Us
Advertisement
Advertisement
শিবভোলার দেশ শিবখোলা স | ফ | র | না | মা

শিবভোলার দেশ শিবখোলা

শিবখোলা পৌঁছলে শিলিগুড়ির অত কাছের কোন জায়গা বলে মনে হয় না।যেন অন্তবিহীন দূরত্ব পেরিয়ে একান্ত রেহাই পাবার পরিসর মিলে গেছে।

সৌরেনি আর তার সৌন্দর্যের সই টিংলিং চূড়া স | ফ | র | না | মা

সৌরেনি আর তার সৌন্দর্যের সই টিংলিং চূড়া

সৌরেনির উঁচু শিখর থেকে এক দিকে কার্শিয়াং আর উত্তরবঙ্গের সমতল দেখা যায়। অন্য প্রান্তে মাথা তুলে থাকে নেপালের শৈলমালা, বিশেষ করে অন্তুদারার পরিচিত চূড়া দেখা যায়।

মিরিক,পাইনের লিরিকাল সুমেন্দু সফরনামা
error: Content is protected !!