Advertisement
  • এই মুহূর্তে দে । শ
  • মে ১৪, ২০২৪

আরও পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ এলটিটিই, বিজ্ঞপ্তি জারি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের

আরম্ভ ওয়েব ডেস্ক
আরও পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ এলটিটিই, বিজ্ঞপ্তি জারি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের

‘লিবারেশন টাইগার্স অব তামিল  ইলম’ অর্থাৎ এল টি টি ই -কে আরও পাঁচ বছরের  জন্য নিষিদ্ধ ঘোষণা করল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ, জনগণের একটা বড়ো অংশের মধ্যে, বিশেষ করে তামিলনাড়ুর একটি অংশের জনতার মধ্যে তারা ধীরে ধীরে বিচ্ছিন্নতাবাদী মনোভাব তৈরি করার কাজ চালিয়ে যাচ্ছে, যা দেশের সার্বভৌমত্বের জন্য রীতিমতো আশঙ্কাজনক।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক এই গোষ্ঠীকে বেআইনি কার্যকলাপ প্রতিরোধ আইন, ১৯৬৭-এর ধারা ৩-এর উপ-ধারা (১) এবং (৩) -এর অধীন নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে।এই প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক একটি বিজ্ঞপ্তি জারি করে জানিয়েছে যে,যদিও এলটিটিই গোষ্ঠীটি দ্বীপ রাষ্ট্র শ্রীলঙ্কার একটি সংগঠন, কিন্তু এই দেশেও তাদের প্রতি সহানুভূতিশীল ব্যক্তিদের অভাব নেই। তাদের কার্যকলাপ নিয়ে রীতিমতো চিন্তিত কেন্দ্র।

২০০৯ সালে এলটিটিই ধ্বংস হয়ে গেছে বলে দাবি করা হলেও, এখনও চলছে গোপনে অর্থসংগ্রহ, প্রোপ্যাগান্ডা। বিদেশে বসবাসকারী এলটিটিই সমর্থকেরা তামিলদের মধ্যে এখনো ভারত বিরোধী প্রচারে ইন্ধন যোগাচ্ছে।পাঁচ বছর আগে নিষিদ্ধ হওয়ার পরেও তাদের দলের ক্যাডারেরা ড্রাগ, অস্ত্র প্রভৃতি সরবরাহের কাজে রীতিমতো যুক্ত রয়েছে।অভিযোগ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের।

এলটিটিই গঠিত হয়েছিল ১৯৭৬ সালে। বছরের পর বছর ধরে মানবতার ইতিহাসের সবচেয়ে প্রাণঘাতী সন্ত্রাসী গোষ্ঠী হিসাবে দেখা দিয়েছিল তারা । ১৯৯১ সালে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী রাজীব গান্ধি  তামিলনাড়ুর  শ্রীপেরুম্বুদুরে ভোটের প্রচারে গিয়ে আর ডি এক্স বিস্ফোরণে নিহত হন। তদন্তে উঠে আসে লিবারেশন টাইগার্স অব তামিল ইলম’ অর্থাৎ এলটিটিই-র নাম।  তারপরে ভারত সরকার তাদের নিষিদ্ধ ঘোষণা করে। সেই থেকে এই নিষেধাজ্ঞা প্রতি পাঁচ বছর অন্তর বৃদ্ধি পেয়ে আসছে।

২০০৯ সালে এই নেতা ভেলুপাল্লি প্রভাকরণের মৃত্যুতে নিষিদ্ধ সংগঠন ধ্বংস হয়ে গেছে বলে আপাতদৃষ্টিতে মনে করা হলেও কেন্দ্রীয় সরকার যে একেবারেই তাতে নিশ্চিত নয়, তা এই বর্ধিত নিষেধাজ্ঞার বিজ্ঞপ্তিই প্রমাণ করে।


  • Tags:
❤ Support Us
error: Content is protected !!