Advertisement
  • দে । শ প্রচ্ছদ রচনা
  • নভেম্বর ১৩, ২০২৩

মধ্যপ্রদেশ “ভারতের দুনীতির রাজধানী, আমরা রাজ্যে ক্ষমতায় এসে বর্ণ শুমারি করব ” নির্বাচনী প্রচার সভায় বললেন রাহুল

আরম্ভ ওয়েব ডেস্ক
মধ্যপ্রদেশ “ভারতের দুনীতির রাজধানী, আমরা রাজ্যে ক্ষমতায় এসে বর্ণ শুমারি করব ” নির্বাচনী প্রচার সভায় বললেন রাহুল

মধ্যপ্রদেশকে ভারতের “দুর্নীতির রাজধানী” বলে আখ্যা দিয়ে সোমবার সেই রাজ্যের ক্ষমতাসীন দল বিজেপিকে তীব্র কটাক্ষ করলেন সংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধি। এই প্রসঙ্গেই বিজেপিকে ব্যাপক দুর্নীতিতে যুক্ত থাকার অভিযোগ করলেন রাহুল গান্ধি। কেন্দ্রীশ মন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমারের ছেলের ঘুষকাণ্ড সংক্রান্ত একটি ভাইরাল ভিডিও প্রসঙ্গে এই অভিযোগ করলেন রাহুল গান্ধি।
সোমবার মধ্যপ্রদেশে একটি রাজনৈতিক প্রচার সভায় বক্তব্য রাখার সময় রাহুল গান্ধি বলেন, “আপনি অবশ্যই বিজেপি নেতা নরেন্দ্র সিং তোমারের ছেলের ভিডিও দেখেছেন? তারা আপনার টাকা লুঠ করছে। বিজেপি নেতাদের এই লুঠপাটের ফলে ক্ষতির মুখে পড়ছে রাজ্যের মানুষ।”

তাঁর বক্তব্যে রাহুল গান্ধি প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেন, “আমরা রাজ্যে ক্ষমতায় এসে বর্ণ শুমারি করব।”

এদিনের নির্বাচনী সভা থেকে রাহুল গান্ধি প্রতিশ্রুতি দিয়ে বলেন, “আমরা ক্ষমতায় এলে ৫০০ টাকায় গ্যাস সিলিন্ডার দেব, কৃষকদের ২ লাখ টাকা পর্যন্ত ঋণ মকুব করব, ২৬০০ টাকা থেকে গমের সহায়ক মূল্য ৩০০০ টাকায় নিয়ে যাব, ১০০ ইউনিট পর্যন্ত বিনা মূল্যে বিদ্যুৎ দেব।”

রাহুল গান্ধি এদিনের সভা থেকে দাবি করেছেন, “মধ্যপ্রদেশে কৃষক ঋণের কারণে ১৮ হাজার কৃষক আত্মহত্যা করেছেন। কংগ্রেস সরকার যখন এই রাজ্যে কৃষি ঋণ মকুব করা শুরু করে, তখন সরকারটাকে চুরি করে নেয় বিজেপি।”

২০১৮ সালে মধ্যপ্রদেশের বিধানসভা নির্বাচনে জিতে কংগ্রেস সরকার গঠন করেছিল। সরকার গঠন করে ২৭ লক্ষ কৃষকের ঋণ মকুবের কাজ কংগ্রেস সরকার যখন শুরু করে, তখন বিজেপি বড় শিল্পপতিদের সঙ্গে হাত মিলিয়ে কৃষক, শ্রমিক ও ছোট দোকানদারদের সরকারকে চুরি করে নিয়েছে বলে রাহুল গান্ধি মন্তব্য করেন।

কংগ্রেসের প্রাক্তন সভাপতির অভিযোগ, “আমি যখন ওবিসি সম্প্রদায়ের প্রসঙ্গে কথা বলা শুরু করলাম, দেশে ওবিসি সম্প্রদায়ের মানুষের সঠিক সংখ্যা জানতে চাইলাম, তখন নিজেকে ওবিসি বলে দাবি করা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কথা বন্ধ হয়ে গেল। প্রধানমন্ত্রী এখন বলছেন, দেশে কোনও জাত নেই, দারিদ্রই দেশের একমাত্র জাত। কেন্দ্রের ৯০ জন অফিসারের মধ্যে ৩ জন ওবিসি সম্প্রদায়ভূক্ত। মধ্যপ্রদেশে ৫৩ জন অফিসারের মধ্যে মাত্র ১ জন ওবিসি সম্প্রদায়ভূক্ত।”

এই রাজনৈতিক উত্তাপকে সঙ্গে নিয়ে আগামী ১৭ নভেম্বর মধ্যপ্রদেশে বিধানসভা নির্বাচন হতে চলেছে। ৩ ডিসেম্বর এই রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশ, ওই দিনই প্রমাণ হয়ে যাবে মধ্যপ্রদেশের মানুষ মোদি না রাহুল কার হাত ধরলেন।


  • Tags:
❤ Support Us
error: Content is protected !!