Advertisement
  • দে । শ প্রচ্ছদ রচনা
  • ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২৩

খলিস্তানি আতঙ্ক! আট রাজ্যে গ্রেফতার ৬ কুখ্যাত গ্যাংস্টার সহযোগী।

গ্রেফতার খলিস্তানপন্থী শিখ ধর্মগুরুর ঘনিষ্ঠ অনুচর, বিক্ষোভে উত্তাল অমৃতসর

আরম্ভ ওয়েব ডেস্ক
খলিস্তানি আতঙ্ক! আট রাজ্যে গ্রেফতার ৬ কুখ্যাত গ্যাংস্টার সহযোগী।

চিত্র: সংবাদ সংস্থা

অস্ত্র ও মাদক পাচারের সঙ্গে জড়িত অপরাধীদের খুঁজে বার করতে দেশের আট রাজ্যের ৭৬ জায়গায় তল্লাশি অভিযান চালাল এনআইএ। গ্রেফতার ৬ । প্রত্যকেই অপরাধ জগতের কুখ্যাত গ্যাংস্টারদের সহযোগী। কেন্দ্রীয় সংস্থার দাবি, ধৃতরা খলিস্তানি কার্যকলাপের সঙ্গে জড়িত। মিলেছে উপযুক্ত প্রমাণ।

সংবাদ সংস্থার খবর, দেশের খলিস্তানি কার্যকলাপ বৃদ্ধির খবর বহুদিন ধরেই পাচ্ছিলেন এনআইএ গোয়েন্দারা। বৃহস্পতিবার তার উৎস অনুসন্ধান করতে পাঞ্জাব, হরিয়ানা, রাজস্থান,উত্তরপ্রদেশ, দিল্লি, মহারাষ্ট্র ও মধ্য প্রদেশের একাধিক জায়গায় হানা দেন কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা। ৬ জনকে আটক করেছেন তাঁরা। এনআইএ সূত্রে দাবি, প্রত্যেকে লরেন্স বিষ্ণোই, জাগ্গু ভাগবানপুরিয়া ও গোল্ডি ব্রারের মতো গ্যাংস্টারদের সহযোগী।

ধৃতদের মধ্যে রয়েছেন লাকি খোকার। যাঁকে রাজস্থানের গঙ্গানগর থেকে পাকড়াও করেছেন এনআইএ গোয়েন্দারা। অভিযোগ, কানাডায় বসবাসকারী খলিস্তানি জঙ্গি আর্শ দাল্লার সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখতেন ভাতিণ্ডার খোকার । ভারতে তাঁর হয়ে তরুণদের মধ্যে খলিস্তানি ভাবধারা প্রসার ও দলের অন্তর্ভূক্ত করা, সন্ত্রাসমূলক কার্যকলাপ পরিচালনা করবার জন্য টাকা তোলার কাজ করতেন লাকি। কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সিংস্থার দাবি,  আন্তর্জাতিক ও আন্তঃরাজ্য সীমান্তে অস্ত্রশস্ত্র, বিস্ফোরক পাচার ও সরবরাহের সঙ্গে যুক্ত তিনি। বিভিন্ন খলিস্তানি সংগঠন যেমন খলিস্তান লিবারেশন ফোর্স, বাব্বর খালসা ইন্টারন্যাশনাল ও ইন্টারন্যাশনাল শিখ ইয়ুথ ফেডেরেশনের সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক রয়েছে।

প্রাথমিক তদন্তের পর, এন আইএ আধিকারিকরা জানতে পেরেছেন ভারতে থেকে পাকিস্তান , মালয়েশিয়া, ফিলিপাইনস, কানাডা, পাকিস্তান, অষ্ট্রেলিয়া,র মতো দেশে তাদের চক্রর বিস্তার ঘটিয়ছিলেন । এই সব দেশে সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ পরিচালনার সঙ্গে যুক্ত ছিলেন এরা। এখন জঙ্গি কার্যকলাপের কাজে অস্ত্র ও মাদকপাচারের টাকা কীভাবে ব্যবহার করা হত, তা তদন্ত করে দেখবেন কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা। এখনও পর্যন্ত ধৃত দের কাছে থেকে অস্ত্র, গোলাবারুদ এবং নগদ ২.৩ কোটি টাকা বাজেয়াপ্ত করেছে তারা।

অন্যদিকে, খলিস্তানি জঙ্গি সন্দেহে অমৃতসরের ধর্মীয় সংগঠন ‘ওয়ারিশ পাঞ্জাব দে’ গোষ্ঠীর এক সদস্যকে গ্রেফতার করল স্থানীয় পুলিশ। সংগঠনের প্রধান অমৃত পাল সিং-এর সমর্থকরা তরোয়াল ও বন্দুক নিয়ে মিছিলে অংশ নিয়েছেন। পুলিশের ব্যারিকেড উপেক্ষা করে থানার সামনে জড়ো হয়েছেন তাঁরা। দাবি, তাঁদের নেতার প্রধান সহযোগী লভপ্রীত তুফানকে অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করেছরকরা হয়েছে। অবিলম্বে তাঁকে ছেড়ে দিতে হবে। পুলিশ বিক্ষোভ সামলাতে গেলে ধস্তাধস্তি শুরু হয়। ৬ জন পুলিশকর্মী আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। স্বঘোষিত ধর্মগুরু খলিস্তানি সমর্থক অমৃত পাল সিং পুলিশকে হুমকি দিয়ে জানিয়েছেন, এক ঘণ্টার মধ্যে অভিযোগ প্রত্যাহার না করা হলে ফল ভালো হবে না। পরবর্তী পরিণতির জন্য দায়ী থাকবে প্রশাসন।


  • Tags:
❤ Support Us
error: Content is protected !!