Advertisement
  • প্রচ্ছদ রচনা স | হ | জ | পা | ঠ
  • ডিসেম্বর ২২, ২০২৩

বিশ্বভারতীর নয়া আবিষ্কারে টেগোর ট্রিবিউট, উপকারী ব্যাকটেরিয়া বাড়াবে ফলন

আরম্ভ ওয়েব ডেস্ক
বিশ্বভারতীর নয়া আবিষ্কারে টেগোর ট্রিবিউট, উপকারী ব্যাকটেরিয়া বাড়াবে ফলন

রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নামে কত কী না আছে । বিশ্ববিদ্যালয়, সেতু, মিউজিয়াম এমনকী পুরস্কারও। এবার ব্যাকটেরিয়ারও নামকরণ হল রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নামে। বিষয়টি চমকে যাওয়ার মতো হলেও সত্যি। এই ব্যাকটেরিয়া ক্ষতিকারক নয় বরং উপকারী। কৃষিক্ষেত্রে এই ব্যাকটেরিয়ার অবদান যুগান্তকারী হতে চলেছে বলে দাবি করেছেন এই ব্যাকটেরিয়ার আবিষ্কারর্তারা। সম্পূর্ণ নতুন প্রজাতির এই উপকারী ব্যাকটেরিয়া আবিষ্কার করেছেন বিশ্বভারতীর অধ্যাপক ও গবেষকরা। নতুন প্রজাতির ওই ব্যাকটেরিয়ার নাম প্যান্টোইয়া টেগোরি।‌ বিশ্ববিদ্যালয়ের মাইক্রোবায়োলজির বিভাগের অধ্যাপক বোম্বা দাম ও পাঁচ সহকারী গবেষক পাঁচ বছর ধরে অক্লান্ত পরিশ্রম করে কৃষিবিজ্ঞানে এই অবদান রাখলেন। তাঁদের এই কাজে উচ্ছ্বসিত বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। কর্মসমিতির বৈঠকে এই আবিষ্কারের ভূয়সী প্রশংসা করা হয়েছে বলে বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা গিয়েছে।

এই ব্যাকটেরিয়া মূলত ধান চাষের অত্যন্ত সহায়ক ৷ এখনও পর্যন্ত জীবন্ত কোনও কিছুর নাম কবিগুরু রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের নামে হয়নি, যেটা এবার হল। ইতিমধ্যেই বিশ্বভারতীর এই আবিষ্কারকে স্বীকৃতি দিয়েছে অ্যাসোসিয়েশন অফ মাইক্রোবায়োলজিস্ট অফ ইন্ডিয়া বা এএমআই।

কৃষিক্ষেত্রে এনপিকে পরিচিত নাম। নাইট্রোজেন, ফসফরাস ও পটাশিয়াম এই তিনের অনুপাতকে সংক্ষেপে এনপিকে বলা হয়। উদ্ভিদের বৃদ্ধিতে এই তিন পদার্থ অপরিহার্য। কিন্তু মাটি থেকে এগুলো সহজে পাওয়া যায় না। তারজন্য রাসায়নিক সার ব্যবহার করে ঘাটতি মেটানো হয়। তবে পরিবেশের কথা মাথায় রেখে জৈব সারের ব্যবহারে প্রাধান্য দেওয়ার কথা বলছেন কৃষি বিজ্ঞানীরা। সেই উদ্দেশ্যেই নতুন ব্যাকটেরিয়ার খোঁজ শুরু করেন বিশ্বভারতীর অধ্যাপক বোম্বা দাম। সেই খোঁজে তাঁর সঙ্গে ছিলেন পাঁচ গবেষক রাজু বিশ্বাস, অরিজিৎ মিশ্র, সন্দীপ ঘোষ, অভিনব চক্রবর্তী ও পূজা মুখোপাধ্যায়। মূলত যে মাটিতে উদ্ভিদের উপযোগী ও প্রয়োজনীয় খাদ্য উপাদান কম রয়েছে, সেখানেই তাঁরা খোঁজ শুরু করেন।

তার প্রেক্ষিতে ওই গবেষক দল ঝাড়খণ্ডের ঝরিয়া কয়লাখনি সংলগ্ন এলাকায় সন্ধান চালান। সেখানেই নতুন প্রজাতির ওই ব্যাকটেরিয়ার খোঁজ মেলে। এরপর ওই ব্যাকটেরিয়াকে ফেনোটাইপিক ও জেনোটাইপিক পদ্ধতিতে চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের বিষয়টি খতিয়ে দেখা হয়। সেখানেই গবেষক দল আবিষ্কার করেন এটি একটি নতুন প্রজাতির ব্যাকটেরিয়া। যেখানে ওই ব্যাকটেরিয়া উদ্ভিদের এনপিকের ঘাটতি মেটাতে সাহায্য করছে বলে জানতে পারেন। এই বিষয়টি দেখে তাঁরা অভিভূত হয়ে যান। এব্যাপারে অধ্যাপক বোম্বা দাম বলেন, ওই আবিষ্কৃত বিষয়টিকে অ্যাসোসিয়েশন অব মাইক্রোবায়োলজিস্ট অব ইন্ডিয়ায় স্বীকৃতি দিয়েছে। পাশাপাশি, চলতি মাসেই ইন্ডিয়ান জার্নাল অব মাইক্রোবায়োলজিতে বিষয়টি প্রকাশিত হয়। এরপর সংশ্লিষ্ট সংস্থা নতুন ব্যাকটেরিয়া আবিষ্কারকে স্বীকৃতি দেয়। কৃষিতে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের অবদানের কথা মাথায় রেখে আমরা মিলিত সিদ্ধান্ত নিয়ে ওই ব্যাকটেরিয়ার নামকরণ করি প্যান্টোইয়া টেগোরি।

এই খবরে অত্যন্ত আনন্দিত বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। সম্প্রতি কর্ম সমিতির বৈঠকে ওই গবেষক দলের প্রশংসা করেছেন ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য সঞ্জয় কুমার মল্লিক। সেখানে তিনি বলেন, এই আবিষ্কার বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে অত্যন্ত গর্বের। যা কৃষি বিজ্ঞানে অবদান রাখবে বলে আমি আশাবাদী। পাশাপাশি ব্যাকটেরিয়ার নামকরণে রবীন্দ্রনাথের নাম ব্যবহার সার্থক বলেও অভিমত প্রকাশ করেছেন বিশ্বভারতীর শিক্ষাভবনের অধ্যাপকরা।

প্যান্টোইয়া টেগোরি এমন একটি উপকারী ব্যাকটেরিয়া যা মাটিকে আরও উর্বর ও কৃষি উপযোগী করে তুলবে। যেভাবে পরিবেশে বাড়ছে তাতে সংক্রমণ ও রোগ সৃষ্টিকারী ভাইরাস-ব্যাকটেরিয়ার সংখ্যাও প্রতিদিনই বাড়ছে। নিশ্চিহ্ণ হয়ে যাচ্ছে বাস্তুতন্ত্রের উপকারী ব্যাকটেরিয়াগুলো। ঠিক এই সময় বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল গবেষক এমনই ব্যাকটেরিয়ার খোঁজ পেয়েছেন যেগুলি মাটিতে খনিজের ভারসাম্য বজায় রাখতে সক্ষম। এই ব্যাকটেরিয়া আগামী দিনে কৃষিকাজের ক্ষেত্রে এক নতুন দিগন্ত খুলে দেবে বলে দাবি বিজ্ঞানীদের।


  • Tags:

Read by:

❤ Support Us
Advertisement
homepage block Mainul Hassan and Laxman Seth
Advertisement
Hedayetullah Golam Rasul Raktim Islam Block Advt
Advertisement
শিবভোলার দেশ শিবখোলা স | ফ | র | না | মা

শিবভোলার দেশ শিবখোলা

শিবখোলা পৌঁছলে শিলিগুড়ির অত কাছের কোন জায়গা বলে মনে হয় না।যেন অন্তবিহীন দূরত্ব পেরিয়ে একান্ত রেহাই পাবার পরিসর মিলে গেছে।

সৌরেনি আর তার সৌন্দর্যের সই টিংলিং চূড়া স | ফ | র | না | মা

সৌরেনি আর তার সৌন্দর্যের সই টিংলিং চূড়া

সৌরেনির উঁচু শিখর থেকে এক দিকে কার্শিয়াং আর উত্তরবঙ্গের সমতল দেখা যায়। অন্য প্রান্তে মাথা তুলে থাকে নেপালের শৈলমালা, বিশেষ করে অন্তুদারার পরিচিত চূড়া দেখা যায়।

মিরিক,পাইনের লিরিকাল সুমেন্দু সফরনামা
error: Content is protected !!