Advertisement
  • দে । শ
  • এপ্রিল ২৩, ২০২২

ছবি তুলতে গিয়েছিলেন, তৃণমূলের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং টিমকে খোঁচা দিলীপ ঘোষের ।

রাজ্যে হিংসা বন্ধ করতে পারেন না। তাঁরা আবার ...। আসলে সবই নাটক। ছবি তুলতে গিয়েছিলেন। ওঁরা এটাই চান।

আরম্ভ ওয়েব ডেস্ক
ছবি তুলতে গিয়েছিলেন, তৃণমূলের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং টিমকে খোঁচা দিলীপ ঘোষের ।

জাহাঙ্গিরপুরী হিংসার ঘটনাস্থল ঘুরে দেখতে শুক্রবার দিল্লি পৌঁছয় কাকলি ঘোষ দস্তিদার, অর্পিতা ঘোষ, অপরূপা পোদ্দার, শতাব্দী রায়ের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং টিম জাহাঙ্গিরপুরীর বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলার উদ্দেশে রাজধানী শহরে গেলেও, শেষ পর্যন্ত হিংসার ঘটনা ঘটেছিল যেখানে সেখানে ঢুকতে পারল না তৃণমূলের সদস্যরা। অভিযোগ, পুলিস ঘাসফুলের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং টিমকে ‘আটকায়’ দেয় । কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের অধীনস্থ দিল্লি পুলিশের বিরুদ্ধে ওঠে বাধা দেওয়ার অভিযোগ! তৃণমূলের এই ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং টিমের সফরের তদারকির দায়িত্বে ছিলেন সাংসদ সুদীপ বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন তৃণমূল নেতা-নেত্রীদের দিল্লি-গমন প্রসঙ্গে সরব হন বিজেপি নেতৃত্ব। সুকান্ত মজুমদার থেকে শমীক ভট্টাচার্য প্রত্যেকেই তৃণমূলের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং টিমকে কটাক্ষ করেন। শনিবার সকালে জাহাঙ্গিরপুরীতে তৃণমূলের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং টিম পাঠানো নিয়ে দিলীপ ঘোষও কটাক্ষ করে বলেন, ‘ রাজ্যে হিংসা বন্ধ করতে পারেন না। নাটক করতে ওখানে গেছেন। আসলে ছবি তুলতে গিয়েছিলেন। ওঁরা এটাই চান। ‘

দেশজুড়ে তোলপাড় ফেলে দেওয়া জাহাঙ্গিপুরীর ঘটনার তথ্যানুসন্ধানের জন্য ৫ জনের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং টিম পাঠায় তৃণমূল। কাকলি ঘোষদস্তিদারের নেতৃত্বে সেই প্রতিনিধি দলে ছিলেন সাংসদ শতাব্দী রায়, অপরূপা পোদ্দার, সাজদা আহমেদ এবং প্রাক্তন সাংসদ অর্পিতা ঘোষ। কিন্তু, জাহাঙ্গিরপুরীর ব্লক সি-তে শেষ ব্যারিকেড অবধি পৌঁছনোর আগেই দিল্লি পুলিশ তৃণমূলের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং টিমকে আটকে দেয় বলে অভিযোগ। কিছুক্ষণ তর্ক-বিতর্ক চলার পরে সেখানে জাহাঙ্গিরপুরীর কয়েকজন বাসিন্দার সঙ্গে কথা বলে ফিরে আসেন তৃণমূলের প্রতিনিধিরা।

প্রসঙ্গত, হনুমান জয়ন্তী পালনকে কেন্দ্র করে উত্তাল হয়ে উঠেছিল দিল্লির জাহাঙ্গিরপুরী! অশান্তির পারদ চড়ে ওঠে জাহাঙ্গিরপুরীর ব্লক সি-তে। অশান্তির পরে সেখানেই চলেছিল বুলডোজার।


  • Tags:
❤ Support Us
error: Content is protected !!