Advertisement
  • এই মুহূর্তে মা | ঠে-ম | য় | দা | নে
  • অক্টোবর ১৭, ২০২৩

ব্রিজ ভূষণ নাকি যৌন হেনস্থা করেননি, কুস্তিগীরদের পালস রেট পরীক্ষা করেছিলেন?‌

আরম্ভ ওয়েব ডেস্ক
ব্রিজ ভূষণ নাকি যৌন হেনস্থা করেননি, কুস্তিগীরদের পালস রেট পরীক্ষা করেছিলেন?‌

ভারতীয় কুস্তি সংস্থার প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট তথা বিজেপি সাংসদ ব্রিজ ভূষণ শরণ সিং নাকি মহিলা কুস্তিগীরদের যৌন হেনস্থা করেননি। তিনি নাকি শুধু মহিলা কুস্তিগীরদের পালস রেট পরীক্ষা করেছিলেন। আদালতে এমনই দাবি করেছেন ব্রিজ ভূষণ শরণ সিংয়ের আইনজীবী রাজীব মোহন। তাঁর যুক্তি, এর সঙ্গে যৌন হেনস্তার কোনও সম্পর্ক নেই। কারণ, পালস রেট পরীক্ষার সঙ্গে যৌন হেনস্থার কোনও সম্পর্ক নেই।
সোমবার শুনানির সময় আদালতে ব্রিজ ভূষণের আইনজীবী বলেন, ‘যৌন অভিপ্রায় ব্যতীত পালস রেট হার পরীক্ষা করা কোনও অপরাধ নয়। কোনও অভিযোগের ভিত্তিতে তদারকি কমিটি গঠন করা হয়নি। কেন্দ্রীয় যুব কল্যান ও ক্রীড়া বিষয়ক মন্ত্রক ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রককে ট্যাগ করে পোস্ট করা টুইটের ভিত্তিতে তদারকি কমিটি গঠন করা হয়েছিল। ব্রিজ ভূষণ শরণ সিংয়ের বিরুদ্ধে যৌন হেনস্থার অভিযোগের কোনও ভিত্তি নেই। তিনি শুধু মহিলা কুস্তিগীরদের পাসল রেট পরীক্ষা করেছিলেন।’‌
অতিরিক্ত চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শুনানি শেষে ১৯ অক্টোবর পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করেছেন। আইনজীবী রাজীব মোহন বিজেপি সাংসদের পক্ষে আদালতে দাঁড়িয়ে যুক্তি দিয়েছিলেন যে, ২০২৩ সালের ১৮ জানুয়ারি যন্তর মন্তরে প্রথম প্রতিবাদ শুরু হয়েছিল এবং ১৯ জানুয়ারি প্রতিবাদী কুস্তিগীরদের হয়ে ববিতা ফোগাট কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুরের সঙ্গে দেখা করেছিলেন। তিনি আরও যুক্তি দিয়েছিলেন যে, ২০ জানুয়ারি ক্রীড়া মন্ত্রক এবং স্বরাষ্ট্র মন্ত্রককে টুইটগুলিতে ট্যাগ করা হয়েছিল। এর আগে পর্যন্ত কোনও অভিযোগ দায়ের করা হয়নি।
২৩ জানুয়ারি তদারকি কমিটি গঠন করা হয়। এই কমিটি গঠন পর্যন্ত কোনও লিখিত বা মৌখিক অভিযোগ ছিল না। সরকারের চিঠির ভিত্তিতে রিপোর্টটি দিল্লির ডেপুটি কমিশনার অফ পুলিশের কাছে পাঠানো হয়েছিল। রাজীব মোহন আদালতকে জানিয়েছেন যে, শ্লীলতাহানি এবং যৌন হয়রানির মধ্যে পার্থক্য রয়েছে। ৬ জন মহিলা কুস্তিগীরের অভিযোগের ভিত্তিতে দায়ের করা যৌন হেনস্থার মামলায় ব্রিজ ভূষণ শরণ সিং এবং বিনোদ তোমরকে চার্জশিট করা হয়েছে।


  • Tags:
❤ Support Us
error: Content is protected !!