Advertisement
  • এই মুহূর্তে দে । শ
  • সেপ্টেম্বর ৪, ২০২৩

যাদবপুরের রেজিস্ট্রারকে চিঠিতে হুমকি দেওয়া “অধ্যাপক” রানা রায় গ্রেফতার

আরম্ভ ওয়েব ডেস্ক
যাদবপুরের রেজিস্ট্রারকে চিঠিতে হুমকি দেওয়া “অধ্যাপক” রানা রায় গ্রেফতার

সম্প্রতি যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ও সহ-রেজিস্ট্রারকে হুমকি চিঠি পাঠানোর অভিযোগ উঠেছিল অধ্যাপক রানা রায়ের বিরুদ্ধে। সেই “অধ্যাপক” রানা রায়কে এবার পুলিশ গ্রেফতার করল অন্য একটি মামলায়। রবিবার রাতে ভুবনেশ্বরের একটি হোটেল থেকে এই অধ্যাপককে  গ্রেফতার করেছে কলকাতা পুলিশ।

এই অধ্যাপকের বিরুদ্ধে একটি শ্লীলতাহানীর অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বেলগাছিয়ার বাসিন্দা এক মহিলা রানা রায়ের বিরুদ্ধে গত ২ সেপ্টেম্বর টালা থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ওই মহিলা জানিয়েছেন, গত চার বছর ধরে রানা তাঁকে উত্ত্যক্ত করছেন। মাঝে মাঝে কুপ্রস্তাব দিয়ে তাঁকে চিঠিও পাঠানো হতো। এমন কি রাস্তায় মাঝে মাঝে তাঁকে পিছন থেকে অনুসরণ করতেন রানা।

পুলিশ জানিয়েছে, গত ১৭ অগস্ট এলআইজি আবাসনের ভিতর ওই মহিলাকে জড়িয়ে ধরেন রানা। এর পরই তিনি পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন। ওই মহিলা আরও অভিযোগ করেছেন, নিজেকে রাজ্য সরকারের উচ্চপদস্থ আধিকারিক বলে পরিচয় দিতেন রানা। গাড়িতে সরকারি আধিকারিকের বোর্ড লাগিয়ে রাজ্য জুড়ে ঘুরতেন ওই অধ্যাপক।

বর্তমানে কয়েক বছর ধরে বেলগাছিয়ায় থাকলেও তিনি আসলে কোচবিহারের বাসিন্দা। রানার কুকীর্তির এখানেই শেষ নয়। এলাকার দোকানদার এবং বাজার ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে টাকাও ধার করেছিলেন। সেই টাকা সে ফেরত দেননি বলে অভিযোগ। এই টাকার পরিমাণ ৬২ হাজার।

তার বিরুদ্ধে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার স্নেহমঞ্জু বসুকেে হুমকি চিঠি পাঠানোর অভিযোগও ওঠে। এই ঘটনায় শনিবারই মামলা রুজু করেছিল পুলিশ। যাদবপুর থানায় ভারতীয় দণ্ডবিধির ৫০৬, ৫০৯ এবং ৩৪ ধারায় মামলা রুজু করা হয়েছিল অভিযুক্ত ‘অধ্যাপক’ রানার বিরুদ্ধে।

তবে যাদবপুরের রেজিস্ট্রারকে চিঠি দিয়ে খুনের হুমকি দেওয়ার কথা রানা রায় প্রথমে অস্বীকার করেছিলেন।


  • Tags:
❤ Support Us
error: Content is protected !!