Advertisement
  • এই মুহূর্তে দে । শ
  • জুলাই ৫, ২০২৩

ইডির ডাকে আজ হাজিরায় যাচ্ছেন না সায়নী। গলসিতে প্রচারে থাকবেন যুব তৃণমূল সভানেত্রী, জানালেন কুণাল ঘোষ

আরম্ভ ওয়েব ডেস্ক
ইডির ডাকে আজ হাজিরায় যাচ্ছেন না সায়নী। গলসিতে প্রচারে থাকবেন যুব তৃণমূল সভানেত্রী, জানালেন কুণাল ঘোষ

শেষ পর্যন্ত আশংকা মিলে গেল। আজ বুধবার ইডির ডাকে সিজিও কমপ্লেক্সে হাজিরায় যাচ্ছেন না যুব তৃণমূল সভানেত্রী সায়নী ঘোষ। তিনি ইডির চাওয়া নথি ইডি দফতর পাঠিয়ে চিঠি দিয়ে জানিয়ে দিয়েছেন আজ, বুধবার পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রচার থাকায় তিনি ইডির ডাকে সিজিও কমপ্লেক্সে হাজিরায় যেতে পারছেন না।

এদিকে বুধবার ১০ টা ৫০ মিনিট নাগাদ কুণাল ঘোষ জানান, “সায়নী ঘোষ আজ ইডির তলবে যাচ্ছেন না। আজ সায়নী বর্ধমানের গলসিতে প্রচারে যাবেন। ৫৩০ পাতার নথি ইডিকে সায়নী পাঠিয়েছে। আজ সায়নী ঘোষকে মৌখিক ভাবে ডাকা হয়েছিল। কোনও শমন দিয়ে ডাকেনি ইডি। সায়নী ঘোষ ভোটের পর নিশ্চয় যাবে। নব জোয়ারের আগে, পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে কেন আমাদের দলের নেতা, প্রার্থীদের কেন ডাকছে ইডি? অভিষেককে বিব্রত করা, নেতাদের ডেকে বিব্রত করা চলছে। সায়নী আগে এবং আগামী কাল সায়নী ঘোষ পঞ্চায়েত নির্বাচনের প্রচারে থাকবেন, সেই মতো সায়নী ঘোষ তৃণমূল যুব সভানেত্রী হিসেবে প্রচারের জন্য বাড়ি থেকে বেরিয়ে গেছেন। সায়নী ঘোষ এজেন্সিকে চিঠি দিয়ে জানিয়ে দিয়েছেন ভোটের পর তাঁকে ডাকলে তিনি যাবেন।”

এদিকে আজ বুধবার সায়নী ঘোষকে তাঁর ব্যাঙ্ক-এর কাগজপত্র, আইয়ের উৎস চেয়ে ইডি ডেকে পাঠিয়েছিল। তাঁর ফ্ল্যাটের মাসিক কিস্তির ৭ লক্ষ টাকা তিনি কি ভাবে দিচ্ছেন সেটাও আজ জানার জন্য সায়নী ঘোষকে ইডি ডেকেছিল।

এদিকে এই প্রসঙ্গে বিজেপি নেতা শমীক ভট্টাচার্য বলেন, “সায়নী ঘোষ এক নয় এই ঘটনায় তাঁর দল জড়িত। সায়নী গেলেন কি গেলেন না সেটা কোনও বিষয় নয়। সায়নী ঘোষ সাক্ষী, না তাঁর সঙ্গে নিয়গ দুর্নীতির যোগ আছে সেটা বিষয় নয়। বিষয়টি হচ্ছে পার্থ চট্টোপাধ্যায়, মানিক ভট্টাচার্য, কুন্তল ঘোষ সবাই নিয়োগ দুর্নীতিতে জেলে। সায়নী এদেরই অংশ।”

তবে এর আগে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে সায়নী ঘোষ জানিয়েছিলেন, “আমায় ৫ তারিখ, ২৫ তারিখ, আবার পরের ৫ তারিখ তদন্তকারী সংস্থা ডাকলে আমি যাবো। আমি তদন্তে সাহায্য করব। আমি যুব নেত্রী, যুবদের ভবিষ্যতের জন্য এই তদন্ত অত্যন্ত জরুরি।”

এদিকে কুণাল ঘোষের সায়নীর পক্ষ নিয়ে বলা প্রসঙ্গে সিপিএম নেতা তন্ময় ভট্টাচার্য বলেন, “কুণাল ঘোষ ইডি, সিবিআই-র ডাকে গিয়ে অভ্যস্ত। সায়নী এই ক্ষেত্রে অনেক ছোট। তাই সায়নীর হয়ে কুণাল বলছেন কেন? সায়নী তো বলবেন। এই নিয়ে ইডি যা বলার বলবেন। এখনও চুনোপুঁটিদের ডাকা হচ্ছে। রুই-কাৎলাদের ডাকা হচ্ছে না। এর জন্য কালীঘাটের টালির চালে তদন্তকারী সংস্থার নোটিশ পাঠাতে হবে।”

এদিকে কুণাল ঘোষ যখন বলছেন, “সায়নী ঘোষ আজ ইডির ডাকে যাবেন না”, তখন ইডির দফতরে সায়নীর পক্ষের বলে নিজেকে দাবি করে এক ব্যক্তি বলেচলেছেন, “ম্যাডাম আসবেন।”


  • Tags:
❤ Support Us
error: Content is protected !!