Advertisement
  • কে | রি | য়া | র-ক্যা | ম্পা | স ধা | রা | বা | হি | ক রোব-e-বর্ণ
  • জানুয়ারি ২৮, ২০২৪

ধারাবাহিক আত্মকথা: আমাদের বিদ্যানিকেতন

জাকির হোছেন্
ধারাবাহিক আত্মকথা: আমাদের বিদ্যানিকেতন

আমিত্বহীনতার বৃত্তান্ত

এন.ই.এফ ল কলেজ। অহিন শিক্ষার অন্যতম সেরা প্রতিষ্ঠান হিসেবে স্বীকৃত আর নন্দিত। ভারতের ভেতরে, ভারতের বাইরেও। কীভাবে কোন্ প্রেক্ষাপটে গড়ে উঠল এখানকার সংহত আর দিকদর্শী পাঠক্রম, তা বিনম্র আর সজল উচ্চারণে শোনালেন বিদ্যানিকেতনের নিখাদ স্থপতি। পাশাপাশি সহযোগী বিদ্যাদাতাদের নিষ্ঠা আর ত্যাগের কথা স্মরণ করে বললেন, যখন শরৎ বিদায় নেয়, যখন হেমন্ত আসে, তাঁরাই আমার নিঃসঙ্গতম অনুভূতিতে জাগিয়ে তোলেন রঙিন ফুল। আমার আঙুলের ডগায় ফুটিয়ে তোলেন বসন্ত, লাল হয়ে সবার বুকে ঝুলতে থাকে তাঁদের সবুজ চাষের স্বপ্ন।

সম্পাদক | ২৮.১.২০২৪

 

• পর্ব-২২ •

যে-কোনো ইতিহাসের গন্তব্য সুনির্দিষ্ট, সে থামতে চায় না, নিরন্তর চলতে চায়, প্রাসঙ্গিক চলতে চায়, প্রাসঙ্গিক হয়ে উঠতে চায়, – সব সময় দাবি তোলে তার ঘটনাপ্রবাহের কথা উপকথা পর্যালোচিত হোক, বলা হোক এই কারণে, এই এই জমিতে তার জন্ম হয়েছে এবং শ্রম, নিষ্ঠা আর ত্যাগের মাধ্যমে সে অর্জন করেছে যোগ্য প্রতিনিধিত্ব।

কেবল সন- তারিখের উল্লেখ আর ঘটনার তাৎক্ষণিকতা দিয়ে ইতিহাসের বিচার চলে না, চলতে পারে না। প্রেক্ষাপট, গতিশীলতা আর বিস্তৃতির কাহিনি জানিয়ে সে চিরকালের খোরাক যোগাতে চায়। জন্মের সময়কে জানাতে বাধ্য হয় এই কারণে যে, ঘটনার পূর্বে, প্রাক্কালে, আরম্ভে পরিস্থিতি কী ছিল, এবং তা কালোক্রমে কী চেহারা ধারণ করল ? বলাবাহুল্য, এসব তথ্য সাজিয়ে আমরা ন্যাশনাল এডুকেশন ফাউন্ডেশন (১৯৯৩) বৃত্তান্ত সাজিয়েছি এবং বলার চেষ্টা করেছি যে, এন.ই. এফের ছত্রছায়ায় গড়ে তুলেছি ভারতের অন্যতম সেরা আইন মহাবিদ্যালয় [প্রতিষ্ঠা ২০০৯]
আমাদের কর্মক্ষেত্র যেহেতু অসম এবং কেন্দ্রস্থল গুয়াহাটি সে কারণে বলা দরকার, ২০০৭ সালের দিকে রাজ্যের কোথাও কোনো বেসরকারি আইন মহাবিদ্যালয় ছিল না। সরকারি কলেজ ছিল কুল্লে তিনটি। গুয়াহাটি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে ইউনিভার্সিটি ল কলেজে, বি বরুয়া কলেজে আরেকটি; আর কটন কলেজে তৃতীয়টি। আপার আসাম আর বরাক উপত্যকার শিলচরে ল কলেজের প্রতিষ্ঠা অনেক অনেক পরে। বেসরকারি আইন মহাবিদ্যালয়ের নির্মাণে আমরাই প্রথম এগিয়ে আসি, সামাজিক চাহিদা মেটাতে। [বহু ছাত্রছাত্রী] সময়োপযোগী আইন শিক্ষার অভিপ্রায় নিয়ে দিল্লি, বেঙ্গালুরু, বেনারস, আলিগড়ে চলে যেত। মেধা পাচার আর বাড়তি খরচ শেখা অসম্ভব হয়ে উঠছিল। আইন কলেজ প্রতিষ্ঠার শুরুতেই আমরা সিদ্ধান্ত নিই, পাঁচ বছরের সংহত পাঠক্রম গড়ে তোলা জরুরি। বি এ এল এল বি (অনার্স) বি বি এ এল এল বি [অনার্স; বি কম. এল এল বি অনার্স]; তিন বছরের এল এল বি এবং এল এল এম। আমরা জানতাম, আমাদের পাঠক্রম সর্বস্তরে গৃহীত হবে।

সরকারের দ্বারস্থ হলাম, সরকার নিঃসঙ্কোচে আইন কলেজ প্রতিষ্ঠার প্রস্তাবে সম্মতি জানিয়ে (NOC) দেয়, কিন্তু গড়িমসি শুরু করল গুয়াহাটি বিশ্ববিদ্যালয়, নানা অজুহাত দেখিয়ে আমাদের ইচ্ছে অপূর্ণ রাখতে চাইলেন তখনকার এগজিকিউটিভ কমিটির কয়েকজন সদস্য। আমিও নাছোড়বান্দা, প্রায় একবছর জুড়ে অবিরত চেষ্টা, বিভিন্ন পদাধিকারিককে লাগাতার অনুনয়-বিনয়ের পর বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মসমিতি আমাদের প্রস্তাবকে গ্রহণ করে সম্মতিপত্র জ্ঞাপন করল। এখনই আমি তাঁদের প্রতি আমার কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বললাম, আমরা চেষ্টা করব, আপনারাও আশা করি সঙ্গে থাকবেন, এবং এই প্রতিষ্ঠান একদিন দেশের সেরা আইন মহাবিদ্যালয় হিসেবে দেশ-বিদেশে সুপরিচিত হয়ে উঠবে। ওঁরা আমার বিনম্র ঘোষণা শুনে খুশি হলেন, আমিও অন্যরকম নির্মাণের সংকল্প নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়লাম। বলতে ভালো লাগছে, বিভিন্ন রাজ্যের মেধাবি ছাত্র-ছাত্রীরা আজ এন.ই.এফ ল কলেজে পড়তে আসে, প্রতিবছর শীর্ষতালিকা দখল করে কেউ কেউ। এই কৃতিত্বের অংশীদার যেমন ছাত্ররা, তেমনি ফেকাল্টির সদস্যরা। এ ব্যাপারে আমি আনন্দিত। বিনম্র।

আমাদের প্রাক্তনীরা এখন বিভিন্ন আদালতের সফল আইনজীবী, উত্তর পূর্বাঞ্চলের প্রতিটি রাজ্যে। দেশের নানা প্রান্তের কোম্পানি আইনেরও কৃতি পরামর্শ দাতা, কেউ কেউ আইন পড়াচ্ছে। গবেষণা করছে। এন.ই.এফ ল কলেজের আকাশের সীমান্ত নেই, আইনের ছাত্ররা জানে, দে আর দ্য লিগাল ইগেলস অফ ফিউচার। তাদের যত দেখি, ততই অশ্রুসিক্ত হয়ে উঠি। ক্যাম্পাসের ভেতরে আড্ডা দিচ্ছে। মেতে উঠছে আইন সংক্রান্ত বিতর্কে, গরমে, শীতে, বছরের সব ঋতুতে প্রকৃতির ভেতরে ও বাইরে তারা ডানা মেলছে। এদের ভেদ নেই, বুদ্ধি আছে, যারা বহুত্ববাদিতার ছায়ায় গড়ে উঠছে, তারাই আমাদের বর্তমান, তারাই স্বপ্নময় ভবিষ্যতের সুজলাসুফলা ইঙ্গিত।
আইন কলেজ গড়তে যাঁদের উদারতা, মুক্ত বুদ্ধি আর বিবেক আমানে সরু দিয়েছি, তাঁদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশের ভাষা নেই আমার। উঁচুস্তরের সমাজসেবক তাঁরা। বি আর এম ল কলেজের প্রাক্তন অধ্যক্ষ হেদায়েতুল্লাহ মুনির সাহেব এক আশ্চর্য আলোকস্তম্ভ। পরামর্শ দিয়েছেন, নিরন্তর পরিশ্রম করে পাঠক্রম তৈরি করেছেন। স্তরে স্তরে এগানোর কথা বলেছেন।

আইন কলেজের সংহত পাঁচ বছরের পাঠক্রম চালু করার ২ বছরের মধ্যেই আমরা বুঝতে পারি, অনুকুল হাওয়া আমাদের আরো আরো এগিয়ে যাবার বার্তা পাঠাচ্ছে। প্রস্তুতি ছিল, ২০০৯ সালে বি বি এ এল এল এল বি চালু করি, অনার্স সহ। চারপাশের উৎসাহ আর ছাত্র- শিক্ষকের নিষ্ঠার ভিত্তিতে দাঁড়িয়ে বি কম এল এল বি কোর্স চালু করলাম। ছাত্রছাত্রী, অভিভাবক আর সংগঠকের মোহিত। কয়েকবছরের মধ্যেই বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাতালিকার সেরা দশের প্রথম ৬টিতে আমাদের কলেজের ছাত্রছাত্রীদের নাম উঠে এল । কলেজের সুনাম সবই ছড়িয়ে পড়ল । সাফল্যের এই ধারাবাহিকতা এখনও অজেয়। নানা সমীক্ষার অকাট্য প্রমাণ, এন.ই.এফ আইন কলেজ দেশের অন্যতম সেরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

সাফল্যে উৎসাহিত হয়ে, সমাজের দাবিকে মান্যতা দিয়ে ২০০৮ সালে আমরা ডিব্রুগড় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধীনে বি বি এ এবং বি সি এ- র নিয়মিত পাঠক্রম চালু করি। ২০১৬ সালে আরম্ভ হয় আমাদের এল এল এম কোর্স।
আমাদের স্বপ্নদর্শী বিদ্যাদাতাদের শ্রম, সাধনা আর গবেষণার ফসল এই আইন মহাবিদ্যালয়। যখন শরৎ বিদায় নেয়, যখন হেমন্ত আসে, তারাই আমার নিঃসঙ্গতম অনুভূতিতে বসন্ত ফুটিয়ে তোলেন, আমার আঙুলির ডগায় নীল হয়ে যেতে চান তাঁরা, লাল ফুল নিয়ে বুকে ঝুলতে থাকে তাঁদের সবুজ চাষের স্বপ্ন। আমি ধন্য, আমি ঋণী।

ক্রমশ…

♦—♦♦—♦♦—♦♦—♦

লেখক: উত্তর-পূর্ব ভারতের প্রথম বেসরকারি কলেজ গোষ্ঠী এন.ই.এফ-এর চেয়ারম্যান। গুয়াহাটির বাসিন্দা

আগের পর্ব পড়ুন: পর্ব-২১

ধারাবাহিক আত্মকথা: আমাদের বিদ্যানিকেতন


  • Tags:

Read by:

❤ Support Us
Advertisement
Hedayetullah Golam Rasul Raktim Islam Block Advt
Advertisement
Hedayetullah Golam Rasul Raktim Islam Block Advt
Advertisement
শিবভোলার দেশ শিবখোলা স | ফ | র | না | মা

শিবভোলার দেশ শিবখোলা

শিবখোলা পৌঁছলে শিলিগুড়ির অত কাছের কোন জায়গা বলে মনে হয় না।যেন অন্তবিহীন দূরত্ব পেরিয়ে একান্ত রেহাই পাবার পরিসর মিলে গেছে।

সৌরেনি আর তার সৌন্দর্যের সই টিংলিং চূড়া স | ফ | র | না | মা

সৌরেনি আর তার সৌন্দর্যের সই টিংলিং চূড়া

সৌরেনির উঁচু শিখর থেকে এক দিকে কার্শিয়াং আর উত্তরবঙ্গের সমতল দেখা যায়। অন্য প্রান্তে মাথা তুলে থাকে নেপালের শৈলমালা, বিশেষ করে অন্তুদারার পরিচিত চূড়া দেখা যায়।

মিরিক,পাইনের লিরিকাল সুমেন্দু সফরনামা
error: Content is protected !!